page contents
Cool Neon Green Outer Glow Pointer

বিচিত্র বিশ্ব :: সূর্য সম্পর্কে অজানা তথ্য

আজ লিখবো সূর্যের কিছু অজানা তথ্য নিয়ে।যেটা আমি নিজেও জানতাম না।তাই ভাবলাম আপনাদের সাথে শেয়ার করি।তাহলে শুরু করা যাক।

সূর্য (The Sun) কি?

সুর্য হলো একটি নক্ষত্র।বিশাল আকারের উজ্জ্বল গ্যাসে ভরা
নক্ষত্র।সূর্যের উজ্জ্বলতার কারন হল গ্যাস এবং জলন্ত নিউক্লিয়ার এর রিএকশন।সূর্যের জন্ম থেকেই উজ্জ্বল ভাবে জলে আসছে।কিন্তু আগামী পাঁচ (০৫) বিলিয়ন বছর পর সূর্য একটি ঠান্ডা নক্ষত্র হয়ে মৃত্যু বরন করবে।
সূর্যের আকার


সূর্যের আকার কত বড় জানেন? সূর্য পৃথিবীর চাইতে ৩,৩২,৯৪৫ গুন বড়।এর চেয়েও মজার ব্যাপার হলো মহাকাশের সব গ্রহ একসাথে করলে যে আকার হবে সূর্য তার থেকেও ৭৫০ গুন বড়।

  • ১৩ লক্ষ্য টি পৃথিবী একটি সূর্যের ভিতরে খুব সহজেই এটে যাবে।

  • সূর্যের কেন্দ্রবিন্দুতে প্রতি সেকেন্ডে ৬০ কোটি টন হাইড্রোজেন গ্যাস  হিলিয়াম গ্যাসে রুপান্তরিত হচ্ছে।

  • সূর্য তার নিজস্ব কক্ষপত্রে প্রতি সেকেন্ডে ২২০ কিঃমিঃ বেগে ঘুরছে।

  • সূর্যের ২২ কোটি বছর লাগে একবার ছায়াপথ ঘুরে আসতে।


সূর্যের স্তর


সূর্যের ছয়টি স্তর।

  • করোনা (Corona): এটি হলো সুর্যের বাহিরের আবরন ।সূর্য গ্রহনের সময় দেখা যায়।

  • ক্রমস্ফেয়ার (Chromosphere): এটি সূর্যের ভিতরের আবরন।

  • ফটোস্ফেয়ার (Photosphere): এটি হলো দৃশ্যমান আবরন যা থেকে সূর্যের আলো বিচ্ছুরিত হয়।

  • কনভেক্টিভ জোন (Convective Zone): এটি হলো সেই আবরন যা থেকে সূর্যের শক্তি বাহিরে বের হয়।

  • রেডিয়েটিভ জোন (Radiative Zone): এই স্তরে সূর্যের কেন্দ্র থেকে রেডিয়েশন বাহিরে উঠে আসে।

  • কোর( Core): এটা হলো সূর্যের কেন্দ্রবিন্দু যেখানে নিউক্লিয়ার রিএকশন হয়ে হাইড্রোজেন গ্যাস থেকে হিলিয়াম গ্যাসে পরিনত হয়ে শক্তিতে পরিনত হয়।


রাতের আলো

এটা খুব আজব একটা জিনিস।এটি সম্মন্ধে অনেকেই জানেনা।এটি শুধু মাত্র উত্তর ও দক্ষিন মেরুতে দেখা যায়।এটি সৌর ঝরের কারনে হয়।


  • সৌর ঝর প্রতি সেকেন্ডে ৪৫০ কিঃমিঃ বেগে পৃথিবীতে ধেয়ে আসে।

  • সৌর ঝর পৃথিবীতে এসে গ্যাস বিক্রিয়ার কারনে আলোকিত হয়ে উঠে যা শুধুমাত্র পৃথিবীর মেরু অঞ্চলে দেখা যায়।এই দৃশ্য খুবই অভুতপুর্ব।

  • সৌর ঝর কে সবাই অরোরা (Aurora) নামে চিনে।


সূর্য কত টুকু গরম হতে পারে?

আপনার কি মনে হয় যে সুর্য কতটুকু গরম? ভাদ্র মাসের গরমেই টের পাওয়া যায়।

  • সূর্যের প্রথম করোনা অংশে গরমের পরিমান থার্মোমিটারের হিসাব করলে দাঁড়ায় ২০ লাখ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড। :) )

  • ফটস্ফেয়ার অংশে থার্মোমিটারের হিসাবে ১.৫ কোটি লাখ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড। OMG!!


সতর্কতাঃ

আপনি কখনোই কোনো ভাবে সরাসরি সূর্যের দিকে খালি চোখে তাকাবেন না।এটি থেকে নিঃসৃত অতি বেগুনি রশ্মি আপনাকে মুহুর্তের মধ্যেই চিরতরে অন্ধ করে দিতে পারে।
আরো কিছু বিচিত্র তথ্যঃ


  • সূর্যের প্রায় ৭৫ ভাগই হলো হাইড্রোজেন গ্যাস।বাকি ২৫ ভাগ হলো হিলিয়াম গ্যাস।

  • সূর্যের বয়স কত জানেন?বলুন তো কত?  পাঁচশো কোটি  বছর।

  • সূর্যের আকার? সূর্যের আকার ১৪ লাখ কিঃমিঃ




আজব তথ্য

সূর্য কেনো গোল?জানেন?জেনে নিন।

সূর্যের কেন্দ্রে গ্যাস ভিতরের দিকে টানছে।কিন্তু গ্যাসের প্রেসারের কারনে সেটা বাহিরে বের হয়ে যাচ্ছে।এই দুই শক্তির কারনে সূর্য গোল হয়ে তার আকার ধরে রেখেছে।

সুত্রঃEvery Fact you Never wanted to Know থেকে এবং ইন্টারনেট থেকে।
Blogger Widgets

Follow by Email